Digital Bangladesh Vision 2021 | টেকনোলজির অগ্রগতিতে বাংলাদেশ

Digital Bangladesh Vision 2021

Digital Bangladesh Vision 2021

টেকনোলজিতে আগামী দিনে বাংলাদেশের অবস্থান কেমন হবে জেনে নিন Digital Bangladesh Vision 2021 ।

বর্তমানে পৃথিবীর মানুষ টেকনোলজির দিকে যেভাবে এগিয়ে চলেছে তার শেষ কোথায়  হয়তো কারো জানা নেই। আমাদের এই ছোট্ট বাংলাদেশও তার কোন দিক দিয়ে পিছিয়ে নেই।

বাংলাদেশ এখন উন্নত টেকনোলজির দেশে রুপান্তরিত হতে চলেছে তার সাথে সাথে উন্নত টেকনোলজির ব্যবহার,

আবিস্কার নিয়ে দিনে দিনে বাংলাদেশও এগিয়ে চলেছে।

তাই আজকের বিষয় টেকনোলজি।

বর্তমানে টেকনোলজির উপর সবাই এতটাই নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে যে টেকনোলজি ছাড়া মানুষ কোন কিছু কল্পনাও করতে পারে না।

বলা যায় বর্তমানে মানুষ সবক্ষেত্রেই টেকনোলজির সাহায্য নিয়ে কাজ করছে

এগুলোর মধ্যে নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় মোবাইল, কম্পিউটার, টিভি, ফ্রিজ, এসি, হোমএপ্লায়েন্স ইত্যাদি যেগুলো ছাড়া মানুষ কোন কিছু কল্পনাও করতে পারেনা।

তবে সবচেয়ে বর্তমানে ইলেক্টনিক্স টেকনোলজিকে মানুষ এমন ভাবে নিয়েছে যে তারা জীবনের প্রতিটা ক্ষেত্রে ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী ব্যবহার করছে তাদের জীবন যাত্রার মান সহজ করা জন্য।

আপনাদের যদি ইলেক্ট্রনিক্স নিয়ে জানার আগ্রহ থাকে বা ইলেক্ট্রনিক্স টেকনোলজি ব্যবহার করতে গিয়ে কোন সমস্যার সম্মুক্ষিন হতে হয় তাহলে ইলেক্ট্রনিক্স সমস্যার সমাধান পেতে এখানে ক্লিক করুন।

টেকনোলজিতে বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থা:

বাংলাদেশের মহা-আকাশে এখন নিজেস্ব একটি স্যাটেলাইট আছে, ৫৭তম দেশ হিসাবে মহা-আকাশে বাংলাদেশের অবস্থান।

আবার ২য় স্যাটেলাইটের কাজ চলছে,

তাই বলা যায় টেকনোলজিতে বাংলাদেশ পিছিয়ে নেই বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তি টেকনোলজিতে বাংলাদেশ যেভাবে এগিয়ে চলেছে আগামী ১০-১৫ বছরে এর অবস্থান কোথায় যাবে আমাদের সবার কল্পনা সম্ভব।

আগামী প্রজন্মের ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের সম্মুখে রয়েছে তাই দেশের ভবিষ্যৎ উজ্জল করতে আমাদের সবাইকে এক হয়ে টেকনোলজি নিয়ে কাজ করতে হবে।

সাথে সাথে সৃজনশীল প্রতিভা বিকাশে দেশের সরকার এবং বিভিন্ন সংস্থাও কাজ করছে।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ জাপান, চায়না, কোরিয়া, ইত্যাদি উন্নত হওয়ার একটাই কারণ তারা তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়েছে

এবং তথ্যপ্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করেছে, ফলে তারা আজ উন্নত দেশের খাতায় নিজের দেশের নাম লিখিয়ে নিয়েছে।

এসব উন্নত দেশের মত আমাদের দেশকেও তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তথ্যপ্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করে,

উন্নত দেশের খাতায় বাংলাদেশের নাম লিখানো সম্ভব।

 

টেকনোলজিতে আগামী দিনে বাংলাদেশের অবস্থান উজ্জল। বাংলাদেশে এখন রোবট তৈরীর মত নানা প্রোগ্রাম চললে,

একসময় জাপান চায়নার মত বাংলাদেশের ঘরে ঘরে রোবট থাকবে।

সবাই তাদের সহযোগী হিসাবে রোবটকে ব্যবহার করবে। এসব রোবটকে চালাতে হলে আপনাকে বেসিক ইলেক্ট্রনিক্স ও সফট্ওয়ার সম্পর্কে বেসিক ধারণা রাখতে হবে।

মোট কথা আপনার মোবাইল, কম্পিউটার, টিভি, হোম এপ্লাইন্স নষ্ট হলে আপনি যেমন ঠিক করতে চান,

তেমনি রোবট ইলেক্ট্রনিক্সের উপর বেসিক ধারণা রাখতে হবে যেন কোন সমস্যা হলে আপনি নিজেই সমাধান বা ঠিক করতে পারেন।

ইলেক্ট্রনিক্স টেকনোলজির উপর বেসিক ধারণা নিতে এবং সার্ভিসিং করতে এখানে ক্লিক করুন।

টেকনোলজির ব্যবহার:

টেকনোলজির ব্যবহার মানুষ এখন এমন ভাবে করছে যে শতজনের কাজ টেকনোলজির মাধ্যমে একাই করতে পারছে।

উন্নত দেশগুলো টেকনোলজির ব্যবহার প্রতিটা ক্ষেত্রে করছে।

যেমন বিভিন্ন কল কারখানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, খাদ্য উৎপাদনশীল ও প্রকৃয়াকরণ ইত্যাদি।

এতে সহজে যে কোন কাজ করা যেমন সম্ভব হচ্ছে তেমনী গুগনগত মানের কোয়ালিটিপূর্ণ কাজ করা যাচ্ছে।

অপর দিকে প্রযুক্তির অতি ব্যবহারের কারণে  মানুষের কর্ম সংস্থান কমে এসেছে।

আগে একটা ফ্যাক্টরীতে হাজার হাজার মানুষ কাজ করত কিন্তু বর্তমানে উন্নত দেশের বিভিন্ন কল-কারখানায় দেখা যায় মানুষের পরিবর্তে রোবট কাজ করতে। ফলে কর্ম সংস্থান কমে আসছে।

পরিশেষে বলা যায় যে, যে প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে কর্ম সংস্থান কমে আসছে সে প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার শিখে কর্ম সংস্থান সৃষ্টি করা সম্ভব।

তাই আমাদের সকলকে টেকনোলজির বিষয়টা গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে। টেকনোলজিকে ব্যবহার করে কর্ম সংস্থান সৃষ্টি করা জানতে হবে।

এজন্য আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি টেকনোলজিকে কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। টেকনোলজিকে কাজে লাগিয়ে কিভাবে আয় করা সম্ভব বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

 

 

Shadman Sakib Khan

নিজের সম্পর্কে তেমন কিছুর বলার নাই, খুবই সাধারণ একটি ছেলে। আতীশ দীপঙ্কর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টয়ে ২য় বর্ষ তে পড়ছি। ছোট বেলা থেকে কম্পিউটার , টেকনোলজি ও খেলাধুলা নিয়ে বেশি আগ্রহ ছিল। তেমন পড়াশোনার আগ্রহ করতাম না , খুবই ফাঁকিবাজি ছিলাম। কিন্ত কম্পিউটার, টেকনোলজি ও অনলাইন এর উপর খুবই আগ্রহ ও জানার ও শিখার ইচ্ছা ছিল এবং কি এখন ও আছে, প্রতিদিন কিছু না কিছু শিখি এবং আমি অন্যকে শিখতে ও সাহায্য করতে ভালোবাসি। তাই টেককেই বেঁছে নিয়েছি পথ চলার সঙ্গী হিসাবে। কাজ করছি ডিজিটাল মার্কেটিং- এসইও নিয়ে। এবং পাশাপাশি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এবং ওয়েব ডেভেলপিং শিখছি। ভালোবাসি আইটি , এসইও সংক্রান্ত নতুন নতুন কিছু শিখতে , আমার শেখা তখনই সার্থক যখন সেটা আমি আরেকজনের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারবো। আর এই জন্য এই ব্লগ সাইটি তৈরি করেছি আপনাদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে।

You may also like...

Leave a Reply

Bangla Smart Tech